Image by Ishan @seefromthesky

নাসেরাত

পবিত্র রমযান এর বিশেষ কার্যক্রম

আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু। 


সকল নাসারাতদের রমজানুল মোবারক। রমজান মাস পবিত্র মাস। আমরা এই পবিত্র মাসে যেসব কাজ নিয়মিত করব তা হল-


১) সময়মতো পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা। 
২) সাধ্যানুযায়ী তাহাজ্জুদ ও তারাবিহ এর নামাজ আদায় করা।
৩) কোরআন খতম করা সম্ভব হলে অর্থসহ কোরআন খতম করা।
৪) হুজুর (আইঃ) প্রদত্ত খেলাফতের যে সকল দোয়া গুলো আছে সেগুলো নিয়মিত পাঠ করা এবং বর্তমান     পারিপার্শ্বিক অবস্থা অনুযায়ী হুজুর (আইঃ) যে সকল দোয়া দিয়েছেন সেগুলো প্রতিনিয়ত পড়া।
৫) প্রতি শুক্রবার হুজুরের লাইভ খুতবা দেখা।
৬) হুজুর (আইঃ)এর নিকট চিঠি লেখা।
৭) নিজস্ব চাঁদা বা তাহরিকে জাদিদ ওয়াকফে জাদিদ এর চাঁদা পরিশোধ করার পাশাপাশি বেশি বেশি সদকা     প্রদান করা।
৮) সাধ্যানুযায়ী গরীব দুঃখী মানুষের সাহায্য করা।
৯) ঘরের কাজে মাকে সাহায্য করা।

খাকসার
আবিদা সুলতানা
নাসেরাতুল আহমদীয়া, বাংলাদেশ।

সাংগঠনিক দায়িত্ব

১- নাসেরাতুল আহমদীয়ার অনুষ্ঠান সফলতার সাথে সম্পাদন করা সেক্রেটারী নাসেরাত এর দায়িত্ব।


২- যেসব জায়গায় লাজনা ইমাইল্লাহ কাজ করছে সেসব জায়গায় যেন নাসেরাতুল আহমদীয়া প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ৭ বছর থেকে     ১৫ বছর বয়সের সব মেয়েদের সদস্যা হিসেবে যেন তালিকাভুক্ত করা হয় তিনি তা দেখবেন।


৩- নাসেরাতের প্রত্যেক সদস্যা যেন নির্দিষ্ট হারে চাঁদা দেয় তা তিনি দেখবেন।


৪- তিনি দেখবেন যেন নাসেরাত থেকে তৎপরতার সাথে চাঁদা ওয়াকফে জাদীদ সংগ্রহ করা হয়। লাজনা কর্মকর্তার পরিবর্তে এই     চাঁদা কোন জামাতী কর্মকর্তার সাহায্যে সংগৃহীত হলে তাকে অনুরোধ করতে হবে যেন রশিদে এটি নাসেরাত থেকে সংগৃহীত     চাঁদা বলে উল্লেখ করেন।

নাসেরাত নিম্নোক্ত ৩টি গ্রেডে বিভক্ত হবেঃ
৩য় গ্রেডঃ ৭,৮,৯ ও ১০ বছর বয়সের
২য় গ্রেডঃ ১১,১২,ও ১৩ বছর বয়সের
১ম গ্রেডঃ ১৪ ও ১৫ বছর বয়সের


৪- ধর্মীয় পড়াশোনার জন্য প্রত্যেক গ্রেডের বিশেষ কোর্স নির্দিষ্ট করে দিতে হবে এবং প্রতি বছর নাসেরাতের জন্য এ সকল      কোর্সের ভিত্তিতে বার্ষিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।সব নাসেরাতকে এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করানোর জন্য বিশেষ প্রচেষ্টা চালাতে হবে।
 

৫- নাসেরাতের কর্মকান্ডে মেয়েদের আগ্রহ বাড়ানোর জন্য লেখাপড়া ও খেলাধূলার বিষয়ে ঘন ঘন প্রতিযোগীতার আয়োজন করতে হবে।

৬- স্থানীয় লাজনার সদস্যাদের মাঝ থেকে একজন মহিলাকে নাসেরাতের নিগরান(সুপারভাইজার) হিসেবে যেন নিযুক্ত করা হয় এটা দেখা সেক্রেটারী নাসেরাতের দায়িত্ব।

৭- মেয়েদের জন্য যে কর্মসূচী প্রনয়ন করা হয়েছে সে সম্বন্ধে নিগরান নাসেরাতুল আহমদীয়ার মায়েদের জানাবেন এবং তাদের সহযোগীতা পাওয়ার চেষ্টা করবেন।


৮- মেয়েদের ধর্মীয় ও নৈতিক প্রশিক্ষণের উপর জোর দিতে হবে।


৯- নাসেরাতদের লেখা প্রবন্ধ তাদের নিজেদের মিটিং এ পড়ার সুযোগ দিতে হবে।তাদেরকে ভাল বক্তা হওয়ার জন্যও ট্রেনিং দিতে হবে। তাদেরকে এ ব্যাপারে বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দিতে হবে।


১০- বুদ্ধিমত্তার অগ্রগতির জন্যে প্রয়োজনীয় যা কিছু দরকার তা গ্রহণ করতে হবে।


১১- সারা বছরে নাসেরাতুল আহমদীয়ার যেসব শাখা ভাল কাজ দেখিয়েছে তাদেরকে পুরস্কৃত করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ সেক্রেটারী নাসেরাত গ্রহণ করবেন।

১২- প্রত্যেক নাসেরাত শাখার মাসিক রিপোর্ট এবং চাঁদা পরবর্তী মাসের ১০ তারিখের মধ্যে জাতীয় কেন্দ্রে যেন পৌঁছায়, এই ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা সেক্রেটারী নাসেরাতের দায়িত্ব।


১৩- নাসেরাতুল আহমদীয়ার জন্য যে নির্দিষ্ট শিক্ষা কোর্স আছে তা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করতে হবে। প্রতি মাসের কোর্সের যে অংশ শেষ করা হবে তা বিশেষভাবে মাসিক রিপোর্টে উল্লেখ করতে হবে।

নাসেরাতুল আহমদিয়ার আহাদনামা

"আশহাদুআল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহূ ওয়াহদাহূ লা শারীকালাহূ ওয়া আশহাদু আন্না মুহাম্মাদান আবদুহূ ওয়া রাসূলূহু"

 

আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি,আল্লাহ ছাড়া কোন উপাস্য নেই। তিনি এক-অদ্বিতীয়, তার কোন শরীক নেই। আমি আরো সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, মুহাম্মাদ (সাঃ) তার বান্দা ও রাসূল। 

"আমি প্রতিজ্ঞা করছি, আমার ধর্ম, জাতি ও মাতৃভূমির সেবার জন্য সর্বদা প্রস্তুত থাকবো। এমনকি সত্যের উপরে সর্বদা প্রতিষ্ঠিত থাকবো। আর আহমদিয়া খিলাফতকে প্রতিষ্ঠিত রাখতে সর্বপ্রকার কোরবানি দেয়ার জন্য প্রস্তুত থাকবো। ইনশাআল্লাহ্‌।"

দিকনির্দেশনা

মাসিক রিপোর্ট:

     প্রতি মাসের রিপোর্ট এমন সময় পাঠানোর জন্য অনুরোধ করছি যেন তা আমাদের হাতে পরের মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে পৈৗঁছায়।

 

তাজনীদ:

     যে সকল নাসেরাত মার্চ’২২ মাসের আগে লাজনা হবে তারা লাজনার সিলেবাস পড়ে পরীক্ষা দিবেন। আর যে সকল নাসেরাত মার্চ’২২ মাসের পর লাজনা হবে তারা গ্রুপের সিলেবাস পড়ে পরীক্ষা দিবেন। কিন্তু যখনই কোন নাসেরাত লাজনা হবে বা শিশু নাসেরাত হবে তা অবশ্যই তাজনীদ সেক্রেটারী এবং নাসেরাত সেক্রেটারীকে চিঠির মাধ্যমে জানাতে হবে।

     যে সকল নাসেরাত আপনার এলাকায় থাকে না তাদের নাম আপনার নাসেরাতের তাজনীদে ও বাজেটে লিখবেন না।

     মাসিক রিপোর্টে তাজনীদের সঠিক সংখ্যা গ্রুপ ভিত্তিক উল্লেখ করবেন।

Branch in a Glass Jar

সিলেবাস

লাজনা ইমাইল্লাহর শতবার্ষিকীর প্রেক্ষিতে লাজনা ইমাইল্লাহ্, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে কিছু কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে ইনশাল্লাহ্। বাস্তবায়ন আমরা সবাই মিলে করবো, ইনশাল্লাহ্।

Books On Shelf

বই পড়া কর্মসূচী

মসীহ্ মাওউদ (আ.)- এর বই পড়া কর্মসূচি; নির্ধারিত বইসমূহ যারা পরে শেষ করবেন এবং প্রতিটি বইয়ের উপর পকেট পর্যায়ে আলোচনা সভা করে এর ওপর কুইজ প্রতিযোগিতা হবে।

বাৎসরীক কার্যক্রম পালনের সময়সীমা