হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী আগত শেষ যুগের প্রতিশ্রুত মসীহ্ ও মাহদী (আ.)

slide1-02.png
হযরত মির্যা গোলাম আহমদ (আ.)
top-view-islamic-new-year-concept_23-2148611689.jpg

ডিসেম্বর মাসের কর্মসূচী

friday-sermons-feature-image-1080x675.jpg

হযরত মির্যা মাসরূর আহমদ (আই.)

আহ্‌মদীয়া মুসলিম জামাতের বিশ্ব-প্রধান ও পঞ্চম খলীফা,
আমীরুল মুমিনীন

লাজনা ইমা'ইল্লাহর আহাদনামা

আশহাদু আল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহূ লা শারীকালাহূ ওয়া আশহাদু আন্না মুহাম্মাদান আবদুহূ ওয়া রাসূলুহূ।
আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আল্লাহ ছাড়া কোন উপাস্য নাই। তিনি এক-অদ্বিতীয় তার কোন শরীক নাই। আমি আরও সাক্ষ্য দিচ্ছি, মুহাম্মদ (সাাঃ) তার বান্দা ও রসূল।
আমি প্রতিজ্ঞা করছি, ধর্ম ও জাতির খাতিরে আমার জান, মাল, সময় ও সন্তান-সন্ততি কোরবানী করতে সদা প্রস্তুত থাকব।  এমনকি  সর্বদা সত্যের ওপর প্রতিষ্ঠিত থাকব। আর খিলাফতে আহমদীয়াকে প্রতিষ্ঠিত রাখতে  প্রত্যেক ত্যাগ স্বীকারে  সর্বদা প্রস্তুত থাকব, ইনশাআল্লাহ।

lajnalogo_new.jpg

লাজনা ইমা'ইল্লাহর পতাকা

Wave

লাজনা ইমা'ইল্লাহ বাংলাদেশ প্রকাশিত গ্রন্থসমূহ

Screenshot_5.png
Screenshot_6.png
Ayeli Masayel.jpg
Purda.jpg
IMG_1386.jpg

বয়আতের তাৎপর্য ও শর্তসমূহ

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী প্রতিশ্রুত মসীহ্‌ ও মাহ্‌দীর আগমনের কথা। হযরত মুহাম্মদ মোস্তফা (সা.)-এর নির্দেশ রয়েছে তার হাতে বয়াত করার।

 

মহানবী (সা.) বলেছেন,

"ফা ইযা রাআয়তুমূহু ফা বায়েউহু ওয়া লাও হাবওয়ান আলাস সালজে ফা ইন্নাহু খালীফাতুল্লাহিল মাহ্‌দী"|

 

অর্থাৎ যখন তোমরা তাঁর সন্ধান পাবে তখন তাঁর হাতে বয়াত গ্রহণ করবে যদি বরফের পাহাড় হামাগুড়ি দিয়ে ডিঙ্গিয়েও যেতে হয়, কেননা তিনি আল্লাহ্‌র খলীফা আল্‌-মাহ্‌দী।

(ইবনে মাজাহ, বাব-খরূজুল মাহ্‌দী)

 

মসীহ্ ও মাহ্‌দীর সত্যতা কারো কাছে প্রকাশিত হয়ে থাকলে কাল বিলম্ব না করে হযরত মুহাম্মদ মোস্তফা (সা.)-এর নির্দেশ অনুযায়ী তাঁর হাতে বয়াত গ্রহন করা উচিত।

প্রিয় বোনেরা,

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। লাজনা ইমা'ইল্লাহ, বাংলাদেশের নিজস্ব ওয়েবসাইট উদ্বোধন হতে যাচ্ছে, আলহামদুলিল্লাহ। সারা বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষী লাজনা ও নাসেরাত বোনেরা এ থেকে উপকৃত হবে ইনশাল্লাহ। লাজনা সংগঠনের  যে কোন তথ্য  আপনারা খুব সহজেই এখানে পেয়ে যাবেন, নতুন নতুন বিষয়গুলোও সবসময় আপডেট দেয়া হবে। 

 

হযরত মির্যা  বশিরুদ্দীন মাহমুদ আহমদ খলীফাতুল মসীহ সানী আল মুসলেহ মাওউদ (রা.) ১৯২২ সালে লাজনা ইমা'ইল্লাহ সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন লাজনাদের মধ্যে জ্ঞানচর্চা বৃদ্ধির জন্য, যেন তারা পরবর্তী প্রজন্মকে উত্তম তরবিয়ত দিতে পারেন। এ বছর লাজনা সংগঠন ২০২২ সালে শতবর্ষে পদার্পণ করতে যাচ্ছে, আলহামদুলিল্লাহ। মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের সে সৌভাগ্য দান করেছেন। লাজনা ইমা'ইল্লাহ সংগঠনের শতবর্ষ উদযাপনের জন্য বাংলাদেশের লাজনা সংগঠনের পক্ষ থেকে কিছু কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। 

 

 

শত প্রতিকূলতা অতিক্রম করে লাজনা ইমা'ইল্লাহ বাংলাদেশ শতবর্ষের কর্মসূচীগুলো সবার সহযোগিতা ও দোয়ার বরকতে এবং স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে বাস্তবায়নের পথে এগিয়ে যাবে বলে  আশা করি। এ শতবর্ষের পথ পরিক্রমায় যারাই আমাদের পথের দিশারী ছিলেন এবং আছেন তাদের সবাইকে দোয়ায় স্মরণ রাখি। 

মহান আল্লাহ তায়ালার বরকতে নিশ্চয়ই আমাদের ক্ষুদ্র প্রচেষ্টাগুলো বৃহৎ আকার ধারণ করবে ইনশাল্লাহ। 

আল্লাহ তায়ালা তাঁর রহমতের ফেরেশতা দ্বারা আমাদের সর্বদা সাহায্য করুন, আমিন।

ওয়াসসালাম

                           

খাকসার,

রেহেনা খায়ের

সদর, লাজনা ইমাই'ল্লাহ, বাংলাদেশ

    সদর সাহেবার বানী

cowritecar_edited.jpg

লাজনা ইমা'ইল্লাহ শতবার্ষিকী ১৯২২- ২০২২